Breaking News আলোকিত নারী সম্মাননা পাচ্ছেন কোহিনূর আখতার সুচন্দা ও রুনা লায়লা                    দুই মন্ত্রীসহ স্বাধীনতা পুরস্কার পাচ্ছেন ১৫ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান                    জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নির্মাতা ও চিত্রশিল্পী খালিদ মাহমুদ মিঠু গাছচাপায় সোমবার মারা গেছেন                    শাকিব খান ও জয়া আহসান অভিনীত দ্বিতীয় ছবি ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেমকাহিনী ২’ মুক্তি পাচ্ছে আগামী ৮ এপ্রিল                    বলিউড অভিনেত্রী প্রীতি জিনতার বিবাহোত্তর সংবর্ধনায় অংশ নেবেন বলিউডের তিন খান শাহরুখ, আমির ও সালমান খান                    দ্য রেভেন্যান্ট ছবিতে অভিনয় করে অস্কার পেলেন হলিউড সুপারস্টার লিওনার্ডো ডি ক্যাপ্রিও                    মাসুদ পথিক পরিচালিত সরকারি অনুদানের ছবি ‘নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ’ ও সৈকত নাসির পরিচালিত ‘দেশা-দ্য লিডার’ এর জয়জয়কার                    এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ২৫ ফেব্রুয়ারি তথ্য মন্ত্রণালয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৪ ঘোষণা করেছে                    সৌরভ গাঙ্গুলীর সঞ্চালনায় জি বাংলা চ্যানেলের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘দাদাগিরি’তে অংশ নিতে রুনা লায়লা ২৯ ফেব্রুয়ারি কলকাতায় যাচ্ছেন                    ১৮ বছর আগের চেক বাউন্স মামলা থেকে রেহাই পেলেন বলিউড অভিনেতা দীলিপ কুমার, মঙ্গলবার মুম্বাই আদালতে এই রায় দেওয়া হয়                    শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘শেষের পরিচয়’ উপন্যাস অবলম্বনে অঞ্জন আইচের পরিচালনায় ‘রূপকথার মা’ নাটকে যাত্রাদলের নায়িকার ভূমিকায় অভিনেত্রী বাঁধন                    ঢাকার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে বুধবার শুরু হওয়া এশিয়া কাপের এগারোতম আসরের খেলা সরাসরি সম্প্রচার করবে মাছরাঙা ও গাজী টেলিভিশন                    প্রয়াত নজরুলসংগীতশিল্পী ফিরোজা বেগমের নামে ২৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গঠন করা হয়েছে ‘ফিরোজা বেগম স্মৃতি স্বর্ণপদক ট্রাস্ট ফান্ড’                    হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে মেহের আফরোজ শাওন পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘কৃষ্ণপক্ষ’ মুক্তি পাচ্ছে ২৬ ফেব্রুয়ারি                    এবার একুশে পদক পেলেন জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত, হায়াৎ মামুদ, হাবীবুল্লাহ সিরাজী (ভাষা ও সাহিত্য) মফিদুল হক (মুক্তিযুদ্ধ), শাহীন সামাদসহ (সংগীত) ১১জন                    বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক আনোয়ার জাহান ঝন্টুর উন্নত চিকিৎসার জন্য সাহায্য কামনা করেছেন তার পরিবার                    শিল্প-সাহিত্য-সংগীতে শিগগিরই মেধাসম্পদ আইন প্রণয়ন করা হবে বলে রবিবার সিরডাব মিলনায়তনে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু                    নেপালে ভয়াবহ ভূমিকম্পে সেখানে অবস্থানরত শুটিং করতে যাওয়া বাংলাদেশি শিল্পীরা সুস্থ ও নিরাপদে আছেন                    কানাডার টরেন্টোতে ১৪ মে শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক সাউথ এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশের তিনটি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে                    সাত বছর আবার একসঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়েছেন চলচ্চিত্রাভিনেতা ফেরদৌস এবং মডেল ও অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম                    বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী ও বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থার আয়োজনে ২৯ এপ্রিল পালিত হবে বিশ্ব নৃত্য দিবস                    বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক আনোয়ার জাহান নান্টু রাজধানীর পপুলার হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে                    ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে চিত্রনায়িকা হ্যাপির করা মামলার চূড়ান্ত শুনানির জন্য ১৭ মে দিন ধার্য করেছে ঢাকা নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল-৫                    জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক সংস্থার নেতা ও অভিনেতা হেলাল খানের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন মহানগর দায়রা জজ                    জি-সিরিজের ব্যানারে ও এলিমেন্ট ফাইভ-এর সৌজন্যে প্রকাশিত হলো ইকবাল আসিফ জুয়েলের আয়োজনে ৩৪টি ব্যান্ডের ৩৪টি গান নিয়ে ৩টি অ্যালবাম                    বরেণ্য সুরকার ও সংগীত পরিচালক আনোয়ার জাহান নান্টু রাজধানীর পপুলার হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে                    রাজধানীর শাহবাগে কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তনে ১৮ এপ্রিল শুরু হয়েছে ‘চারুনীড়ম টেলিভিশন কাহিনীচিত্র উৎসব’                    আসন্ন কান চলচ্চিত্র উৎসবের লালগালিচায় হাঁটবেন বলিউড অভিনেত্রী ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চন ও সোনম কাপুর                    রাজধানীর গুলশানে ১৭ এপ্রিল ছিনতাইয়ের কবলে পড়ে আহত হন অভিনেত্রী ও মডেল তানজিনা তিশা                    এমআইবি গানমেলায় লেজারভিশনের ব্যানারে ১৬ এপ্রিল প্রকাশিত হয়েছে মিশ্র অ্যালবাম ‘কিছু প্রত্যাশা’                    ভারতের টাইমস গ্রুপের ২০ আবেদনময়ী নারীর তালিকায় ১৯ নম্বরে বাংলাদেশের অভিনেত্রী জয়া আহসান                    বাংলাদেশ শিল্পী সমিতি নির্বাচনে জয়ী হলেন সভাপতি পদে সাকিব খান ও সাধারণ সম্পাদক পদে অমিত হাসান                    চল্লিশের দশকের কবি আবুল হোসেন রবিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে স্কয়ার হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন                    `স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস’ প্রতিযোগিতায় ৩ লাখ তরুণীর মধ্যে বিজয় মুকুট জিতেছেন ময়মনসিংহের তরুণী রোকেয়া রাশেদ রিমি                    নিউ ইয়র্কের আর্ট কানেকশন গ্যালারিতে চলছে বিপাশা হায়াতসহ ৮ বাংলাদেশি নারীশিল্পীর চিত্রকর্ম প্রদর্শনী                    
Find us on facebook Find us on twitter Find us on you tube RSS feed
05 May 2016   07:21:13 PM   Thursday BdST A- A A+ Print this E-mail this

যেদিকে তাকাই সেদিকেই রবীন্দ্রনাথকে পাই -পাপিয়া সারোয়ার

প্রশান্ত অধিকারী
 যেদিকে তাকাই সেদিকেই রবীন্দ্রনাথকে পাই  -পাপিয়া সারোয়ার

 

আনন্দভুবন : আপনার জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকায় একটি সাংস্কৃতিক পরিম-লে। প্রথমেই আপনার পারিবারিক পরিম-লের কথা জানতে চাই।

পাপিয়া সারোয়ার : আমার জন্ম ঢাকার আজিমপুরে ২১ নভেম্বর। আমার বাবা সৈয়দ ফজলুর রহমান ছিলেন সরকারি চাকরিজীবী। মা ফাতেমা রহমান ছিলেন গৃহিণী। আমরা সাত বোন এক ভাই। আমি ভাইবোনদের মধ্যে পঞ্চম। আমার ভাইবোনেরা সবাই সাংস্কৃতিক পরিম-লে বেড়ে উঠেছি। কেউ সরোদ বা সেতার বাজাতেন তো কেউ গান গাইতেন। আমার স্বামী সারোয়ার আলম একজন ব্যবসায়ী। আমার দুই কন্যা জারা সারোয়ার ও জিসা সারোয়ার। ওরা দুজনই বাইরে থাকে। তবে ছোট কন্যা জিসা এখনো সংগীত ছাড়েনি। ওর স্বামী ইমরান আজিজের সংগীত আয়োজনে বছর দুয়েক আগে আমার আর জিসার যৌথ একটি অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে।

আনন্দভুবন : আপনার ছেলেবেলার পারিবারিক পরিবেশ কেমন ছিল ?

পাপিয়া সারোয়ার : আমাদের ছেলেবেলায় তো টেলিভিশন বা কম্পিউটার ছিল না। আমাদের বাসায় গান-বাজনা ছিল। আমরা ভাইবোনরা সাংস্কৃতিক পরিম-লে বড়ো হয়েছি। মা সংস্কৃতিমনা মানুষ ছিলেন। পিয়ানো বাজাতেন, গান করতেন, কবিতা লিখতেন, সেলাই করতেন। আমরা যখন ঘুমাতে যেতাম তখনো রবীন্দ্রনাথের গল্পগুচ্ছ হাতে থাকত। মামারাও গান করতেন। নানু গান লিখতেন, সুর করতেন। আমি আজিমপুর স্কুল থেকে ম্যাট্রিক এবং বদরুন্নেসা কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাস করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ভরতি হয়েছিলাম। এক বছর পর বৃত্তি পেয়ে শান্তিনিকেতনে চলে যাওয়ায় আর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া হয়নি। আমার বড়ো বোন বিয়ের পর খুলনায় থাকতেন। মাঝে মাঝে খুলনা থেকে ঢাকা এসে তিনি আমাদের জোর করে বসাতেন গান করার জন্য। পঞ্চম কি ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে হারমোনিয়াম ধরে গানের রেওয়াজ করা শিখেছি। সপ্তম শ্রেণি থেকে ছায়ানটে ভরতি হয়েছি। নবম শ্রেণিতে পড়াকালীন বিটিভিতে গান গাওয়া শুরু, তবে সেটা নজরুলসংগীত দিয়ে। আর আধুনিক গান দিয়ে শুরু বেতারে। তখন তো বেতার-টেলিভিশনে রবীন্দ্রসংগীত নিষিদ্ধ।

আজিমপুর অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজ যেখানে এখন, ওখানে আমাদের ছেলেবেলায় একটা কিন্টারগার্ডেন ছিল। কচিকাঁচার আসরের কাজ করতেন দাদাভাই। আমাদের আঁকতে দেওয়া হত গান শেখানোর পাশাপাশি। আমরাও গানের দৃশ্যকল্প আঁকার চেষ্টা করতাম। আমরা সব বোনেরা কচিকাঁচার আসরে যুক্ত ছিলাম। এমনিভাবেই আমাদের সাংস্কৃতিক আবহের মধ্যে ছেলেবেলা কেটেছে।

আনন্দভুবন : পাপিয়া সারোয়ার হওয়ার পেছনে শান্তিনিকেতন আপনার মধ্যে কি পরিবর্তন ঘটিয়েছে ?

পাপিয়া সারোয়ার : এখন বুঝি শান্তিনিকেতনের পরিবেশ পাওয়ার ক্ষেত্রে বাড়ির পরিবেশ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আমি ছেলেবেলা থেকে রবীন্দ্রনাথের গান গাওয়া শুরু করেছি। তখন আঁকতে গেলেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান যেন আমার আঁকায় ভেসে উঠত। বলা যায় সেখান থেকেই রবীন্দ্রনাথের গান আমার ভালো লাগতে লাগল। আমরা ১৯৬৭ সালের দিকে যখন বেতারে-টেলিভিশনে গান গাওয়া শুরু করি তখন পাকিস্তান আমল। রবীন্দ্রসংগীত গাইতে দিত না পাকিস্তার সরকার। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে আবার শুরু হলো। তার আগে সংগীতের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা শুরু ৭ম শ্রেণি থেকে ছায়ানটে। তখন সন্জীদা খাতুন, ওয়াহিদুল হকের কাছে শিখতাম। ওনাদের বাসাও ছিল আজিমপুরে। আমি মনে করি, আমার ক্ষেত্রে পরিবার একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করেছে। শান্তিনিকেতনে যাওয়ার আগে বুলবুল ললিতকলা একাডেমির [বাফা] ৪ বছরের কোর্স সম্পন্ন করি। আমি ছেলেবেলায় বেশ ডানপিটে স্বভাবের ছিলাম। শান্তিনিকেতনে গিয়ে শিক্ষক হিসেবে পাই কণিকা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তখন ওনার অবস্থান মধ্যগগনে। শান্তিনিকেতনের সে কি প্রাকৃতিক পরিবেশ। গরমের সময় প্রচ- গরম আবার শীতের সময় প্রচ- শীত। শান্তিনিকেতনে প্রত্যেকটা ঋতুর পরিবর্তন প্রত্যক্ষ করা যেত।

আনন্দভুবন : আপনার প্রথম অ্যালবাম কবে প্রকাশ হয় ?

পাপিয়া সারোয়ার : সে এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা। সন তারিখ মনে নেই। আমি নাম বলছি না। একবার বেতারের রেকর্ড করা গান কপি করে আমার, মিতালী মুখার্জি ও অসীমদার গান একসঙ্গে অ্যালবাম করে বাসায় নিয়ে এলেন এক ভদ্রলোক। সঙ্গে এক হাঁড়ি মিষ্টি। তিনি ভেবেছেন তাতে আমরা বোধহয় খুশি হব। সেই হলো আমার প্রথম অ্যালবামের অভিজ্ঞতা। তারপর ১৯৮৩-১৯৮৪ সালের দিকে অ্যালবাম বের হতে শুরু করে। এ পর্যন্ত অনেক অ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে। কিন্তু আমি অ্যালবামের খোঁজ রাখি না। অনেক সময় কোম্পানির লোকেরা এসে তাদের পছন্দমতো গান গাইতে বলত। আমি তাতে রাজি হতাম না। আমি আমার পছন্দমতো গান দিয়ে অ্যালবাম করতে বলতাম। এ পর্যন্ত আমার অনেক অ্যালবাম বেরিয়েছে ঠিকই কিন্তু তা আমার সংগ্রহে নেই। এ ব্যাপারে আমি একেবারেই উদাসীন।

আনন্দভুবন : আপনার এত অ্যালবাম বের হয়েছে ঠিকমতো কি তার রয়ালিটি পেয়েছেন ?

পাপিয়া সারোয়ার : এটা আমাদের দুর্ভাগ্য বলা যেতে পারে। আমাদের দেশে এখনো এই বিষয়টি চালু হয়নি। আমিও কখনো এ নিয়ে কথা বলিনি। আমার মনে হয় এটা নিয়ে শিল্পীরা সংগঠিতভাবে কাজ করেনি বলে অ্যালবাম প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলো শিল্পীদের নানাভাবে ঠকিয়েছে। তারা ভাবটা এমন দেখায় যে বিক্রি হচ্ছে না। আগে আমাদের এককালীন বেশ টাকা দেওয়া হত। এখন সেটাও দেওয়া হয় না। অনেকে আবার কোর্ট করছে। আমি তো ওসব চাই না। আমি গানটা গাই শান্তির জন্য। অনেকে টাকা হলেই যেখানে-সেখানে গান গায়। আমি সেটা পারি না। সেখানে আমার গান গাওয়ার পরিবেশ আছে কিনা, সেটা আগে দেখি।

আনন্দভুবন : সংগীত চর্চার ক্ষেত্রে নিয়মিত রেওয়াজ কতখানি দরকার বলে মনে করেন ?

পাপিয়া সারোয়ার : গান একটি সাধনার বিষয়। আমি যখন শান্তিনিকেতনে পড়তাম তখন দেখতাম উচ্চাঙ্গসংগীতে যিনি আছেন তিনি দৈনিক ১৮ ঘণ্টা রেওয়াজ করতেন। আমাদের গুরুরা ৩-৪ ঘণ্টা রেওয়াজ করতে বলতেন। আমি এখনও কমবেশি প্রতিদিন রেওয়াজ করি। কিন্তু আমরা এখন যাদের শেখাই তাদের বলি, প্রতিদিন অন্তত ১৫-২০ মিনিট কর। যাতে গলাটা তোমার সচল থাকে। গানটা ভালোলাগার বিষয়। যে-ই চর্চা করুক তার আগে গান ভালো লাগতে হবে। আত্মস্থ করে গাইতে গেলে চর্চার বিকল্প নেই।

আনন্দভুবন : আপনার সংগীত সংগঠন ‘গীতসুধা’র বর্তমান কার্যক্রম কি ?

পাপিয়া সারোয়ার : ‘গীতসুধা’র মাধ্যমে ছোটদের-বড়োদের সবাইকে শেখাই। নিয়মিত আমি এ-কাজ করে যাচ্ছি। তবে আমার এ সংগঠন থেকে কোনো সনদপত্র দিই না। কারণ আমি সনদপত্রে বিশ্বাসী নই।

আনন্দভুবন : রবীন্দ্র্রনাথ ঠাকুরকে আপনি কীভাবে দেখেন কিংবা আপনার ভাবনায় রবীন্দ্র্রনাথ ঠাকুর কী ?

পাপিয়া সারোয়ার : রবীন্দ্রনাথ আমার কাছে শ্বাসপ্রশ্বাসের মতো, বাতাস-জলের মতো। এগুলো ছাড়া যেমন আমরা বাঁচতে পারি না তেমনি রবীন্দ্রনাথকে ছাড়া চলা প্রায় অসম্ভব। কারণ যেদিকে যাই, যেদিকে তাকাই সেদিকেই রবীন্দ্রনাথকে পাইÑ রবীন্দ্র্রনাথ ঠাকুর আমার জীবনজুড়ে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
যেদিকে তাকাই সেদিকেই রবীন্দ্রনাথকে পাই  -পাপিয়া সারোয়ার

সারেগারে-এর সর্বশেষ

হোম এইপক্ষ পাঠক সমাবেশ জন্মদিন আকাশলীনা মিনি সাক্ষাৎকার অল্পস্বল্প লোকেশন থেকে অঁভোগ ডায়েট অল ইন অল রান্না রূপচর্চা বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার মুভিমেলা মুম্বাই হলিউড মুভিমেলা ডটকম সারেগারে নিকেটদেশ দূরদেশ অল্পস্বল্প অনুশীলন নতুন মুখ পেছনের মানুষ প্রোফাইল রঙ্গশালা আবৃত্তি ভ্রমণ সাক্ষাৎকার বিশেষ সম্পাদকীয় ঐতিহ্য বিশেষ রচনা সাহিত্য টেকভুবন ব্যক্তিত্ব নাচ প্রকৃতি ব্যবসায়-বাণিজ্য সংস্কৃতি ভুবনবিচিত্রা পুনশ্চ গ্যালারি

প্রধান সম্পাদক: আলমগীর হোসেন, সম্পাদ: ইকবাল খোরশেদ,

সম্পাদকীয় সহকারী: ফিরোজ সরোয়ার, ঊর্ধ্বতন সহ-সম্পাদক: শেখ সেলিম, প্রশান্ত অধিকারী, প্রতিবেদক: ফাতেমা ইয়াসমিন, আতিফ আতাউর, ঊর্ধ্বতন গ্রাফিক্স ডিজাইনারঃ মো. সাহাদাত হোসেন, গ্রাফিক্স ডিজাইনারঃ মনির হোসেন, কম্পিউটার সহকারীঃ চৌধুরী নূরজাহান বেগম, আলোকচিত্রী: জাকির হোসেন, বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপকঃ মো. মোখলছেুর রহমান, সহকারী বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপকঃ কাজী ইসরাইল পিরু, বাণিজ্যিক নির্বাহীঃ শহিদুল ইসলাম এমেল, মাহবুব আলম, সহকারী ব্যবস্থাপক, প্রশাসন ও হিসাবঃ মো. আমিনুল ইসলাম

বেল টাওয়ার (১৩ তলা), বাড়ি-১৯, সড়ক-১, ধানমন্ডি, ঢাকা।

মেইলঃ news@anandabhuban.com.bd, info@anandabhuban.com.bd, editor@anandabhuban.com.bd

কপিরাইট © 2019 আনন্দভূবন.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com